হোসাইন আহম্মেদ আজমী : প্রশ্নঃ স্ত্রীর মুখে লিঙ্গ দেওয়া জায়েজ আছে কি? প্রশ্নঃ বউয়ের যোনিতে কি মুখ দেওয়া যাবে? প্রশ্নঃ স্বামী তার স্ত্রীর যোনি এবং স্ত্রী তার স্বামী (পুরুষাঙ্গ+যোনি) চুষতে পারবে কি? উপরের প্রশ্ন ৩ টি কিন্তু মূলে জবাব একটি। তাই তিনটির প্রশ্নের জবাব এক সাথে দিয়ে দিলাম। উত্তরঃ যৌনাঙ্গতে মুখContinue Reading

হোছাইন আহমাদ আযমী : নিসাবের বিবরণঃ যেই পরিমাণ সম্পদ হলে যাকাত ফরজ হবে তাকে নিসাব বলে। ১। স্বর্ণের ক্ষেত্রে যাকাতের নিসাব হল বিশ মিসকাল,আধুনিক হিসাবে সাড়ে সাত ভরি (মুসান্নাফে আব্দুর রাযযাক হাদীস ৭০৭৭,৭১০৪)। ২। রূপার ক্ষেত্রে নিসাব হল দুইশত দেরহাম। (সহীহ বুখারী, হাদীস ১৪৪৭, সহীহ মুসলিম, হাদীস ৯৭৯) আধুনিক হিসাবেContinue Reading

হোছাইন আহমাদ আযমী : যেসব জিনিষের উপর যাকাত ফরয হয়ঃ (২য় পর্ব) ৬। মৌলিক প্রয়োজন থেকে উদ্ধৃত্ত টাকা-পয়সা নিসাব পরিমান হলে এবং এক বছর স্থায়ী হলে বছর শেষে তার যাকাত আদায় ফরয হয়। (মুসান্নাফে আব্দুর রাযযাক ৭০৯১,৭০৯২) ৭। তদ্রƒপ ব্যাংক ব্যালেন্স, ফিক্রড ডিপোজিট, বন্ড, সার্টিফিকেট ইত্যাদি নগদ টাকা পয়সার মতই।Continue Reading

হোছাইন আহমাদ আযমী : যাকাতের মত গুরুত্ত্বপূর্ণ ফরজ আদায়ের জন্য প্রয়োজন সে বিষয় সম্পর্কে শরয়ী মাসআলা মাসায়েল গুলো জানা। প্রথমেই আমরা জানব কাদের উপর যাকাত ফরজ হয়। যাদের উপর যাকাত ফরয হয় তারা হলো, সুস্থ মস্তিষ্ক, আযাদ, বালেগ, মুসলমান, নিসাব পরিমান সম্পদের মালিক হলে যাকাত আদায় করা তার উপর ফরজContinue Reading

হোছাইন আহমাদ আযমী : রমযান মাসে অন্যান্ন ইবাদতের পাশাপাশি দান সদকার প্রতি মানুষের অত্যাধিক আগ্রহ দেখা যায়। বিশেষ করে যাকাত প্রদান করার ক্ষেত্রে অনেকে এই মাসকেই নির্বচন করে থাকে। তাই আজ থেকে কয়েকটি লেখায় এই বিষয়টি প্রাধান্য দেয়ার চেষ্টা করব ইনশাআল্লাহ। যাকাত ইসলামের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি রোকন। ঈমানের পর সবচেয়েContinue Reading

হোছাইন আহমাদ আযমী : ইতিকাফের মুস্তাহাব ও আদব সমূহঃ ১. ইতিকাফের জন্য সর্বোত্তম মসজিদ নির্বাচন করা। সর্বোত্তম মসজিদ হলো মসজিদে হারাম, তারপর মসজিদে নববী, তারপর বায়তুল মোকাদ্দাস, তারপর যে জামে মসজিদে জামাতের ইন্তেজাম আছে, তারপর মহল্লার মসজিদ, তারপর যে মসজিদে বড় জামাত হয়। ২. নেকীর কথা ব্যতিত অন্য কথা নাContinue Reading

হোছাইন আহমাদ আযমী : যেসব কারনে ই’তিকাফ নষ্ট হয়ে যায় এবং কাযা করতে হয়ঃ ১. স্ত্রী সহবাস করলে ই’তিকাফ ফাসেদ হয়ে যায়, চাই বীর্যপাত হোক বা না হোক, ইচ্ছাকৃত বা ভুলে হোক। সহবাসের আনুষাঙ্গিক কাজ যেমন চুম্বন, আলিঙ্গন, ইত্যাদির কারনে বীর্যপাত হলে ই’তিকাফ ফাসেদ হয়ে যায়। আর বীর্যপাত না হলেContinue Reading

নিউজ ডেস্ক : যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্য পরিবেশে সারা দেশে পবিত্র লাইলাতুল কদর বা শবে কদর পালিত হচ্ছে। মুসলমানদেরক কাছে কাছে শবে কদরের রাত হাজার রাতের চেয়ে পুণ্যময়। পবিত্র শবে কদরের রাতে ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা আল্লাহর নৈকট্য ও রহমত লাভের আশায় ইবাদত বন্দেগি করছেন। পবিত্র রমজান মাসে লাইলাতুল কদরে পবিত্রContinue Reading

হোছাইন আহমাদ আযমী : ই’তিকাফ : ১. ই’তিকাফের অর্থ হলো স্থির থাকা, অবস্থান করা। পরিভাষায় জাগতিক কার্যকলাপ ও পরিবার পরিজন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে সওয়াবের নিয়তে মসজিদে বা ঘরের নির্দিষ্ট স্থানে অবস্থান করা ও স্থির থাকাকে ইতিকাফ বলে। ২. রমযানের শেষ দশকে ই’তিকাফ করা সুন্নাতে মুয়াক্কাদায়ে কেফায়া, অর্থাৎ বড় গ্রাম বাContinue Reading

হোছাইন আহমাদ আযমী : তারাবীহর নামায ও মাসায়েলঃ রমযান মাসে ইশার নামাযের পর ইশার ওয়াক্তের মধ্যে যে বিশ রাকাআত সুন্নাতে মোয়াক্কাদা পড়তে হয় তাকে তারাবীহর নামায বলে। নারী পুরুষ উভয়ের জন্য তারাবীহর নামায সুন্নতে মোয়াক্কাদাহ। [পূর্বালোচনার পর থেকে] ১১. তারাবীহ-তে বুঝে আসেনা এমন ভাবে দ্রুত তিলাওয়াত করা সওয়াবের পরিবর্তে গুনাহেরContinue Reading

হোছাইন আহমাদ আযমী : তারাবীহর নামায ও মাসায়েলঃ রমযান মাসে ইশার নামাযের পর ইশার ওয়াক্তের মধ্যে যে বিশ রাকাআত সুন্নাতে মোয়াক্কাদা পড়তে হয় তাকে তারাবীহর নামায বলে। নারী পুরুষ উভয়ের জন্য তারাবীহর নামায সুন্নতে মোয়াক্কাদাহ। [পূর্বালোচনার পর থেকে] ৫. প্রত্যেক চার রাকাআতের পর মুনাজাত করা জায়েয আছে কিন্তু বিশ রাকাআতContinue Reading

হোছাইন আহমাদ আযমী : তারাবীহর নামায ও মাসায়েলঃ রমযান মাসে ইশার নামাযের পর ইশার ওয়াক্তের মধ্যে যে বিশ রাকাআত সুন্নাতে মোয়াক্কাদা পড়তে হয় তাকে তারাবীহর নামায বলে। নারী পুরুষ উভয়ের জন্য তারাবীহর নামায সুন্নতে মোয়াক্কাদাহ। তারাবীহ শব্দের অর্থ বিশ্রাম করা। পারিভাষিক অর্থে রমজান মাসে তারাবীহের নামাজের প্রতি চার রাকাত পরContinue Reading

হোছাইন আহমাদ আযমী : যে অবস্থায় রোযা নিষিদ্ধ ও যে অবস্থায় না রাখার অনুমতি আছে : ১. মহিলাদের মাসিক হায়েজ তথা ঋতু কালীন সময় ও নেফাস তথা সন্তান প্রসব পরবর্তি রক্তশ্রাব অবস্থায় রোযা ছেড়ে দিতে হবে। ২. যদি কেউ শরীয়ত সম্মত সফরে থাকে তাহলে তার জন্য রোযা না রাখার অনুমতিContinue Reading