৪৬ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা

:নিউজ ডেস্ক : বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক পদে নিয়োগ সুপারিশপ্রাপ্ত প্রার্থীদের যোগদানে বাধা দেয়ায় ৪৬টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর।

এনটিআরসিএর সুপারিশপ্রাপ্তদের নিয়োগপত্র গ্রহণ করেনি এ ৪৬টি প্রতিষ্ঠানের প্রধান। এ প্রেক্ষিতে ইতোমধ্যেই কয়েকটি প্রতি্ঠোনকে শোকজ করা হয়েছে। কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

জানা গেছে, সুপারিশপ্রাপ্ত প্রার্থীদের এ ৪৬টি প্রতিষ্ঠানে যোগদানে বাধা প্রয়োগ করা হচ্ছে বলে গত ১৯ মার্চ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগকে লিখিতভাবে জানিয়েছে এনটিআরসিএ।

এনটিআরসিএর সুপারিশপ্রাপ্ত প্রার্থীদের যোগদান পত্র গ্রহণ না করে এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামোর ১৮.১ (ঘ) ধারা ভঙ্গ করেছেন এ ৪৬টি প্রতিষ্ঠানের প্রধান। গত ১১ এপ্রিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে এ বিষয়ে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরে জানানো হয়। এ প্রেক্ষিতে গত ৩০ এপ্রিল প্রতিষ্ঠানগুলোকে শোকজ করে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর।

কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র জানায়, শোকজের জবাব কেউ কেউ দিয়েছেন। অনেকে এখনো পাঠায়নি। তবে যাদের জবাব পাওয়া গেছে তাদের বক্তব্য যাচাই করা হচ্ছে। অসঙ্গতি পরিলক্ষিত হলে এ বিষয়ে শুনানি গ্রহণ করা হবে। সূত্র আরও জানায়, দুই প্রতিষ্ঠানের প্রধানের জবাব সন্তোষজনক হয়নি। ব্যক্তিগত শুনানিতে এ দুই প্রতিষ্ঠানের প্রধানকে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরে তলব করা হয়েছে।

এ প্রতিষ্ঠান দুই হল, কুড়িগ্রামের চিলমারী বিজনেস ম্যনেজমেন্ট কলেজ এবং দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলার খামারদিঘা এইচ আর টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজ। এ দুই প্রতিষ্ঠানের প্রধানের ব্যক্তিগত শুনানি আগামী ১২ জুন কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরে অনুষ্ঠিত হবে।

এ দুই প্রতিষ্ঠানের প্রধানকে এনটিআরসিএর কাছে শিক্ষক নিয়োগের চাহিদা পত্রসহ ণিয়োগের যাবতীয় তথ্যের এক সেট সত্যায়িত কপিসহ নিয়োগের যাবতীয় কাগজপত্রের সত্যায়িত কপি সাথে নিয়ে ব্যক্তিগত শুনানিতে উপস্থি থাকতে বলা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten + 6 =

SinglePostBottom