বিকেল চারটা থেকে ব্যবসা করবে ভ্রাম্যমান ও ফুটপাত ব্যবসায়ীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী মহানগরীর ফুটপাত ব্যবসায়ীদের সাথে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার দুপুরে নগরভবনের সিটি হল সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।

সভায় মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, নাগরিকদের নির্বিঘ্নে চলাচলের লক্ষ্যে ফুটপাত উন্মুক্ত রাখতে হবে। সাহেব বাজার, লক্ষ্মীপুরের ন্যায় নগরীর ব্যস্ততম এলাকার ফুটপাত ব্যবসায়ীদের নিয়ন্ত্রণের নীতিমালা চূড়ান্ত করা হচ্ছে। ঢাকার ন্যায় রাজশাহী মহানগরীতেও বিকেল ৪টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত ফুটপাতে ব্যবসা করা হবে। ব্যবসা শেষে মালামাল উঠিয়ে নিয়ে যেতে হবে। রাস্তা বা ফুটপাতে কোন মালামাল রাখা যাবে না। বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টি না হওয়া পর্যন্ত এভাবে ব্যবসা করতে পারবে ফুটপাত ও ভ্রাম্যমান ব্যবসায়ীরা।

মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন আরো বলেন, ফুটপাত বা ভ্রাম্যমান ব্যবসায়ীদের জন্য সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে ব্যবসা করার জন্য বিশেষ ভ্যান প্রদান করা হবে। দুইটি মডেলের ভ্যান ইতোমধ্যে তৈরি করা হয়েছে। আরো কয়েকটি মডেল তৈরি প্রস্তুত করা হচ্ছে। ভ্যান তৈরির পর নীতিমালার মাধ্যমে এসব ভ্যান ব্যবসায়ীদের মাঝে সরবরাহ করা হবে।

রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাওগাতুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ ও ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, সাবেক দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র ও ২১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিযাম উল আযীম, ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুস সোবহান লিটন, ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রুহুল আমিন টুনু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ৯ এপ্রিল রাসিকের বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, জনদুর্ভোগ দূরকরণে ও নগরবাসীর চলাচল নির্বিঘ্ন করতে সকাল থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ফুটপাত বা রাস্তার ধারে দোকান বসাতে পারবে না ব্যবসায়ীরা। ফুটপাত ও রাস্তার পাশের ব্যবসায়ীরা বিকাল ৪টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত ব্যবসা করতে পারবে। তবে কোনও ব্যবসায়ী ফুটপাত বা রাস্তায় স্থায়ীভাবে ব্যবসার মালামাল ও সরঞ্জাম রাখতে পারবে না। বিকাল ৪টায় মালামাল এনে দোকান বসিয়ে রাত ১০টা পর্যন্ত ব্যবসা করতে পারবে। এরপর রাত ১০টায় দোকান সরিয়ে নিয়ে যেতে হবে। তবে গত রমজান মাস উপলক্ষে এই নিয়ম শিথিল ছিল। ফুটপাত ব্যবসায়ীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে রমজান মাস সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ব্যবসা করার অনুমতি দিয়েছিলেন মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eleven + twelve =

SinglePostBottom