এরশাদের বনানী কার্যালয়ে ৪৩ লাখ টাকা চুরি

নিউজ ডেস্ক : জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের বনানী কার্যালয়ে চুরির ঘটনা ঘটেছে। সোমবার রাতের কোনো এক সময় দুর্বৃত্তরা কার্যালয়ের তালা ভেঙে ৪৩ লাখ টাকা চুরি করে নিয়ে

যায়।হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি খন্দকার দেলোয়ার জালালী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বেতন ও বিভিন্ন অনুষ্ঠানের জন্য অফিসে ৪৩ লাখ টাকা ছিল। দুর্বৃত্তরা চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলমের রুমের তালা ভেঙে টাকাগুলো নিয়ে গেছে।এ ছাড়া আরো তিনটি রুমের তালা ভাঙা হয়েছে। খবর পেয়ে সকালে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসেছে। এ ঘটনায় থানায়

মামলা করা হবে।এ বিষয়ে পুলিশের বনানী থানার এসআই মোকলেস গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তারা এখনো লিখিতভাবে চুরির বিষয় কিংবা টাকা খোয়া যাওয়ার বিষয়ে কোনো ক্লেইম করেননি।’তিনি বলেন, ‘কার্যালয়ের মেইন গেটের ভেতরে ঢোকার পর ছোট্ট তিনটি কক্ষ রয়েছে।

এর মধ্যে দুটি কক্ষের লক ভাঙা পেয়েছি আমরা। কক্ষের আশপাশে কোনো সিসি ক্যামেরা ছিল না, এমনকি পুরো ভবনে কোনো সিসি ক্যামেরা নেই।’তিনি আরও বলেন, ‘কার্যালয়ের লোকজন দাবি করছে, একটি কক্ষ থেকে ৪২ লাখ টাকা এবং আরেকটি থেকে প্রায় ১ লাখ টাকার মতো খোয়া গেছে। তবে তারা এ বিষয়ে এখনো কোনো লিখিতভাবে অভিযোগ করেনি।’এর আগে স্বাক্ষর জাল ও সম্পদের নিরাপত্তাহীনতার আশঙ্কায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।গত ২৪ এপ্রিল, বুধবার রাজধানীর বনানী থানায় জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করেন থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মিথুন।তিনি জানান, জিডি নম্বর ১৫০২।

এর ঘটনা তদন্তের দায়িত্ব পেয়েছেন বনানী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শায়হান ওয়ালীউল্লাহ।জিডিতে অভিযোগ করা হয়, তার বর্তমান ও অবর্তমানে স্বাক্ষর নকল করে পার্টির প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, দলের বিভিন্ন পদ-পদবি বাগিয়ে নেয়া, ব্যাংক হিসাব জালিয়াতি এবং পারিবারিক সম্পদ, দোকানপাঠ, ব্যবসা-বাণিজ্য হাতিয়ে নেয়া ও আত্মীয়-স্বজনদের জানমাল হুমকির মুখে রয়েছে। এ কারণে তিনি মনে করেন অসুস্থতার সুযোগ নিয়ে কেউ যেন এমন অপরাধ করতে না পারে, সে বিষয়ে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two + fourteen =

SinglePostBottom